৫ কোটি পরিবারে যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছাকার্ড

টেকআলো প্রতিবেদক:
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। তিনি মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডী ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরের সামনে রক্ষিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী জাতির পিতার প্রতিকৃতির বেদীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণের পর স্বাধীনতার এই মহান স্থপতির প্রতি সম্মান জানানোর অংশ হিসেবে সেখানে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন।
এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে দেশবাসিকে শুভেচ্ছা জানিয়েন। প্রধানমন্ত্রী‘র স্বাক্ষরিত এই শুভেচ্ছা বাণী সম্বলিত পোস্টকার্ড ডাকঘর দেশবাসির হাতে পৌছে দিবে। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের উদ্যোগে দেশের পাঁচকোটি পরিবারের নিকট ডাকযোগে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা বাণী সম্বলিত পোস্টকার্ড পৌঁছে দেয়া হচ্ছে।
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ এর কাছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা‘র শুভেচ্ছা বাণী সম্বলিত এই পোস্টকার্ড হস্তান্তর করেন। এরই মধ্য দিয়ে দেশব্যাপী পাঁচকোটি পরিবারের প্রতিটি পরিবারের প্রধানের হাতে ডাকযোগে এই পোস্টকার্ড বিতরণের কার্যক্রম শুরু হলো।
এছাড়াও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের উদ্যোগে স্মারক ডাকটিকিট প্রকাশ করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণভবনে স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত করেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে গণভবনে স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।
জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো: নূর-উর- রহমান, বিটিআরসির চেয়ারম্যান মো: জহুরুল হক, বাংলাদেশ কমিউনিকেশন্স স্যাটেলাই কোম্পানি লিমিটেড চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ, ডাক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এসএস ভদ্র, বিটিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: রফিকুল মতিন, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল লি: এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মশিউর রহমান,টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: সাহাব উদ্দিন এবংটেশিস ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফকরুল হায়দারসহ ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ ও এর অধীন সংস্থা সমূহের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন ।
পরে মন্ত্রী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকায় ডাক ভবনে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন। তিনি কেক কেটে জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বছরব্যাপী ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের আয়োজিত অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন।
আজ থেকে শতবর্ষ আগে ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। শেখ লুৎফর রহমান এবং সায়রা খাতুনের ছয় সন্তানের মধ্যে তিনি ছিলেন তৃতীয়।
সারাদেশে আজকের দিনটি জাতীয় শিশু দিবস হিসেবেও উদযাপিত হচ্ছে। সরকার ১৭ মার্চ ২০২০ থেকে ২৬ মার্চ ২০২১ সাল পর্যন্ত সময়কে জাতির পিতার এই জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে মুজিববর্ষ হিসেবে ঘোষণা করেছে। বাংলাদেশের সঙ্গে সমগ্র বিশ্বে ইউনেস্কো এই বছরটি উদযাপন করবে।