চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় ইন্ডাস্ট্রি ও অ্যাক্যাডেমিয়া সম্মিলিত ভাবে কাজ করতে হবে : পলক

টেকআলো প্রতিবেদক:
তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক আগামী দিনের পথ চলায় নিজেদের উদ্ভাবনী মানসিকতাকে কাজে লাগাতে নবাগত শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় ইন্ডাস্ট্রি ও অ্যাক্যাডেমিয়া সম্মিলিত ভাবে কাজ করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
প্রতিমন্ত্রী ১২ আগস্ট ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস অ্যান্ড টেকনোলজি ( বিইউবিটি) এর “সামার ২০২০ সেমিস্টারে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছিলেন।
প্রতিমন্ত্রী শিক্ষাকে বিশ্ব পরিবর্তনের হাতিয়ার উল্লেখ করে বলেন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এবং আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদের তত্ত্বাবধানে দেশে শিক্ষা ও প্রযুক্তিনির্ভর কর্মসংস্থান নিশ্চিত করতে সারাদেশে ২৮ টি হাইটেক পার্ক, ৬৪ জেলায় ৬৪ টি শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেশন সেন্টার প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে। পাঁচটি হাইটেক পার্কের কার্যক্রম ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে। বাকিগুলোর বাস্তবায়ন কার্যক্রম চলছে। তিনি বলেন ইতিমধ্যে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে আমরা আইসিটি খাত হতে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রপ্তানি করেছি। আগামী পাঁচ বছরে আরো পাঁচ বিলিয়ন রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে কাজ করছি।
তিনি বলেন নতুন প্রজন্মকে উদ্যোক্তা কিংবা উদ্ভাবক হয়ে বাংলাদেশকে মর্যাদাসম্পন্ন জাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে হবে।
প্রতিমন্ত্রী তারুণ্যের মেধা ও প্রযুক্তির শক্তিকে কাজে লাগিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলার আধুনিক রূপ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।
বি ইউ বিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ ফৈয়াজ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিইউবিটি ট্রাস্ট চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. শফিক আহমেদ সিদ্দিক, ট্রাস্ট অন্যতম সদস্য প্রফেসর মোহাম্মদ আবু সালে., আর্টস ফ্যাকাল্টির ডিন প্রফেসর সৈয়দ আনোয়ারুল হক প্রমুখ।