করোনা মোকাবেলায় সরকারের পাশে রবি’র ডেটা অ্যানালিটিকস সল্যুশন

টেকআলো প্রতিবেদক:
করোনা ভাইরাসজনিত মহামারী মোকাবেলায় সরকারকে সহায়তা করার জন্য ডেটা অ্যানালিটিকস এর দক্ষতা নিয়ে এগিয়ে এসেছে দেশের শীর্ষস্থানীয় ডিজিটাল সেবা প্রদানকারী কোম্পানি রবি। সরকারের তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগের এটুআই প্রোগাম ও মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অংশীদারিত্বে রবি একটি শক্তিশালী ডেটা এনালিটিকস সিস্টেম গঠন করেছে যা জনস্বাস্থ্যের জরুরি পরিস্থিতি মোকাবেলায় কার্যকর।

২ এপ্রিল এক ডিজিটাল সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। ডিজিটাল প্ল্যাটফমের মাধ্যমে সামাজিক দূরত্বের বিধিগুলো কঠোরভাবে অনুসরণ করে আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক এমপি, ডিরেক্টর জেনারেল অব হেলথ সার্ভিসেস অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ, এটুআই’র পলিসি অ্যাডভাইজর অনীর চৌধুরী, রবি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ, চিফ কর্পোরেট অ্যান্ড রেগুলেটরি অফিসার সাহেদ আলমসহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাবৃন্দ নিজ নিজ অবস্থান থেকে সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেন।

সংবাদ সম্মেলনে রবি’র চিফ ইনফরমেশন অফিসার ড. আসিফ নাইমুর রশিদ দেখান ডেটা এনালিটিকস সল্যুশনটি কীভাবে কাজ করে এবং করোনা সংকট মোকাবেলায় সরকার এই তথ্য কীভাবে কাজে লাগাতে পারেন।

রবি’র এনালিটিকস টিম ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা ক্রাউডসোর্স থেকে ডাটা সংগ্রহ করে এনালিটিক্যাল সুল্যশনটি তৈরি করেছে। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ক্রাউডসোর্সিং করার ফলে গুরুত্বপূর্ণ ডেটা সংগ্রহ করা সম্ভব হবে। একইসাথে ডাটা সায়েন্সের মাধ্যমে ক্রাউডসোর্স থেকে ডাটা সংগ্রহ করার ফলে এনালিটিকস সল্যুশনটির মাধ্যমে বিপুল এই তথ্য যাচাই করাও সম্ভব হবে। এর ফলে একটি মানস্মত তথ্য ভান্ডার গড়ে তোলা যাবে।

ক্রাউডসোর্সিংসহ আইভিআর, ইউএসএসডি এবং মাই রবি ও মাই এয়ারটেল অ্যাপ থেকে ডাটা সংগ্রহ করায় রবি’র এনালিস্টরা বিভিন্ন উদ্ভাবনী ডেটা ভিজ্যুয়ালাইজেশন নিশ্চিত করতে পারবেন যাতে গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের সন্নিবেশ করা সম্ভব হবে। এই তথ্যভান্ডার থেকে সরকার সহজেই তাদের প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী পেয়ে যাবেন। ডেটা এনালিটিকস সল্যুশনের তৈরি রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে কোন নির্দিষ্ট এলাকায় রোগটি ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা নির্ণয়ের মাধ্যমে সরকার পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে পারবে।

রবি ও এয়ারটেলের পাশাপাশি অন্যান্য অপারেটর ব্যবহারকারীরা রবি (www.robi.com.bd) বা এয়ারটেল (www.bd.airtel.com) কর্পোরেট ওয়েবসাইট অথবা মাই রবি অ্যাপ বা মাই এয়ারটেল অ্যাপের মাধ্যমে এই প্রকল্পের আওতায় সরকারকে প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী প্রদান করতে পারবেন। ব্যবহারকারী এই চ্যানেলগুলোর মাধ্যমে করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় তৈরি সরকারি পোর্টাল: www.corona.gov.bd এ প্রবেশ করতে পারবেন। এখানে প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী প্রদান করতে পারবেন ব্যবহারকারীরা। অথবা প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করতে গ্রাহকরা *৩৩৩২# কোডটি ডায়াল করতে পারেন। তথ্য প্রদান করা ছাড়াও প্ল্যাটফর্মটিতে ডিজিএইসএস’র দেয়া সেলফ-টেস্টের মাধ্যমে কোন ব্যক্তি আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কতটা তা জানতে পারবেন।

অনুষ্ঠানে আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্মেদ পলক, এমপি বলেন, “আমাদের দেশে করোনা পরিস্থিতিটা আসলে কেমন তা এই ডাটা এনালিটিকস সল্যুশনর মাধ্যমে জানতে পারব। আমার দৃঢ় বিশ্বাস আমরা সবাই যদি তথ্য দিয়ে এই সল্যুশনটি সমৃদ্ধ করি তাহলে এই ডাটা এলালিটিকস সল্যুশনের মাধ্যমে আমরা সবচেয়ে কার্যকর উপায়ে করোনা মহামারী মোকাবেলা করতে পারব।”

ডিজি হেলথ অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ বলেন, “আমাদের বিশ্বাস রবি’র তৈরি ডাটা এনালিটিকস সল্যুশন ব্যবহার করে আমরা করোনা ভাইরাস মোকাবেলা করতে পারব। ডিজিটাল সল্যুশনের মাধ্যমে রবি যা করল আমার প্রত্যাশা অন্যান্য অপারেটররাও এক।ভিাবে এগিয়ে আসবে। করোনা মোকাবেলায় তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগ ও এটুই নিজে থেকে এগিয়ে আসার জন্য তাদের ধন্যবাদ জানাই।”

এটুআই’র পলিসি অ্যাভাইজর অনীর চৌধুরী বলেন, “রবি একটি টেলিযোগাযোগ কোম্পানি, বিগ ডেটা এনালিটিকস ও এআই কোম্পনি এবং রিসার্চ অর্গানাইজেশন যা বাংলাদেশকে কোভিড-১৯ মোকাবেলায় সহায়তা করছে। ইতোমধ্যে এটুআই’র সহায়তায় সরকারি-বেসরকারি উদোগে ডিজিএইচ’র সাথে ডেঙ্গু সনাক্তকরণে সফলতার স্বাক্ষর রেখেছি আমরা। বর্তমান কোভিড-১৯ মোকাবেলার পরিস্থিতিতে দেশের সমন্বিত বিগ ডেটা এনালিটিকস কাজে লাগিয়ে নীতি নির্ধারকরা সহজে সংকট মোকাবেলা এবং পরিকল্পনা প্রণয়ণের সুযোগ পাবেন।”

রবি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ বলেন, “করোনা মহামারী মোকাবেলায় সরকারের সাথে হাত মেলাতে পেরে আমরা গর্বিত। ডিজিটাল কোম্পানি হিসেবে গড়ে উঠার অংশ হিসেবে রবি ডাটা অ্যানালিটিকস সল্যুশনে উল্লেখযোগ্য দক্ষতা অর্জন করেছে। এ প্রকল্পে শুধু ক্লাউড সেবা নয়, ডাটা অ্যানালিটিকস নিয়ে আমাদের অর্জিত সব দক্ষতা ও জ্ঞান ঢেলে দিয়েছি। এই ডিজিটাল সল্যুশনের সাহায্যে দেশের সবার সক্রিয় অশগ্রহণের মাধ্যমে আমরা সরকারকে সহযোগিতা করতে পারি যাতে সরকার আমাদের সল্যুশনের দেয়া ডেটা মডেলিংয়ের ওপর নির্ভর করে একটি নির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে জনস্বাস্থ্যের জন্য পরিকল্পনা গ্রহণ করতে পারেন। সৃষ্টিকর্তার করুণায় যৌথ প্রচেষ্টার মাধ্যমে আমরা অবশ্যই করোনা ভাইরাসকে প্রতিহত করতে পারব।”

অসাধারণ এই উদোগটিকে বাস্তবে রূপদানে সহযোগিতা করার জন্য রবি’র তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগ, এটুআই ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে ধন্যবাদ জানান রবি’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও। এছাড়া এই প্রকল্প বান্তবায়নে টেলিযোগাযোগ খাতের অভিভাবক ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রী, মোস্তাফা জব্বার’র প্রেরণার কথাও বিশেষভাবে উল্লেখ করেন তিনি।