করোনার প্রভাব প্রযুক্তির মাধ্যমে মোকাবেলায় সমন্বিত পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে -আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক

টেকআলো প্রতিবেদক:
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক করোনার প্রভাব প্রযুক্তির মাধ্যমে মোকাবেলায় সমন্বিত পরিকল্পনা গ্রহণের উপর গুরুত্বারোপ করে বলেন এ পরিস্থিতি দীর্ঘমেয়াদে চললে দেশের স্বাস্থ্যসেবা, শিক্ষা, খাবার-নিত্যপণ্য সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে প্রযুক্তিকে ব্যাপকভাবে কাজে লাগাতে হবে।
প্রতিমন্ত্রী ২০-মার্চ কারওয়ান বাজারের জনতা টাওয়ারে করোনা পরিস্থিতি প্রযুক্তির মাধ্যমে কীভাবে মোকাবেলা করা যায় সে সে বিষয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ কর্তৃক আয়োজিত ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সাংবাদিকদের সাথে উন্মুক্ত মতবিনিময় সভা এসব কথা বলেন।
জুম অ্যাপের মাধ্যমে ভিডিও কনফারেন্সে সরাসরি যোগ দেন বিভিন্ন গণমাধ্যমকর্মীসহ দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সরকারি-বেসরকারি ১০০ এর বেশি অংশীজনরা।
জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, এসওপি স্টান্ডার্ড অপারেশনস প্রসেডিওর (এসওপি) এবং বিজনেস কন্টিনিউটি প্লান (বিসিপি) এই দুটি ডকুমেন্ট তৈরি করার উদ্দেশ্যে এই মতবিনিময়ের আয়োজন করা হয় ।
পরিস্থিতি যদি দ্রুত ভাল হয়ে যায় তাহলে দুশ্চিন্তার কিছু নেই তবে যদি খারাপ হয়ে যায় তাহলে তার জন্য এখন থেকে প্রস্তুতি নিতে হবে। যদি ৩১ মার্চ এর মধ্যে পরিস্থিতি ভাল হয়ে স্বাভাবিক হয়ে যায় তাহলে তো আর দুশ্চিন্তা নেই কিন্তু যদি কোনো কারণে পরিস্থিতি কনটিনিউ করে তাহলে ভাববার রয়েছে, প্রস্তুতির বিষয় আছে’ বলছিলেন তিনি।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, যদি কয়েক মাস বা আরও বেশি দিন এমন চলে তাহলে স্কুল -কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে বাড়িতে বসে কীভাবে শিক্ষা কার্যক্রম চালানো যায় তার ব্যবস্থা করতে হবে। ‘ফুড ডেলিভারি, প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র, স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা, জরুরি প্রয়োজনে জিনিসপত্র সরবরাহ যেন স্বাভাবিক রাখা যায় সে প্রস্তুতি নিতে হবে। লজিস্টিক ঠিক রাখা এবং সেটি হবে কীভাবে তার পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে। আর এজন্যই সবাইকে নিয়ে এই মতবিনিময়। সমস্যাগুলো চিহ্নিত করা এবং প্রযুক্তির সহায়তায় পরিস্থিতি সামাল কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন তিনি উল্লেখ করেন।
জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, যারা ঘরে বসে থাকবেন তারা কীভাবে সময় পার করবেন, যোগাযোগ রক্ষা করবেন এগুলো দেখা। ডিজিটাল সংযোগে সময় কাটানোর সুযোগ রাখতে হবে।
সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়য়, বিভাগ এবং দপ্তর ভিডিও প্রযুক্তিতে প্রেস কনফারেন্স করতে চাইলে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগ সব ধরনের সহযোগিতা দেবে বলে জানিয়েছেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। এ ধরনের সংবাদ সম্মেলন আয়োজনের জন্য আইসিট বিভাগ পুরোপুরি প্রস্তুত বলে দাবি করেন তিনি।
এসময় আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম, এক্সেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) এর পলিসি অ্যাডভাইজর আনির চৌধুরী, ইউএনডিপি বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর সুদীপ্ত মুখার্জী, ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব) এর সভাপতি শমী কায়সারসহ রাইড শেয়ারিং, শিক্ষা, ই-কমার্স, লজিস্টিক প্ল্যাটফর্ম, টেলিকম খাতের শীর্ষ ব্যক্তি এবং দেশের আইসিটি খাতে কাজ করা গণমাধ্যমকর্মীরা কনফারেন্সে অংশগ্রহণ করেন ।